ঢাকা: ধর্ষকের সর্বোচ্চ সাজা নিশ্চিত করার দাবিতে আন্দোলন করছে নানা শ্রেণি পেশার মানুষ। আজ ধর্ষকদের মৃত্যুদণ্ড প্রকাশ্যে কার্যকর দাবিতে প্রধানমন্ত্রী, প্রধান বিচারপতি ও আইনমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের নারী আইনজীবীরা।

তাদের ভিড়ে ধর্ষণের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করছেন অনেক তারকারাও। তবে স্বশরীরে রাজেপথে নেমে এলেন দেশের জনপ্রিয় তারকা দম্পতি ওমর সানি ও মৌসুমী। টিম পজিটিভ বাংলাদেশের (টিপিবি) ব্যানারে নোয়াখালীসহ সারাদেশে ধর্ষণ ও যৌন নিপীড়ণের সাথে জড়িতদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে এই দুই তারকা বুধবার (৭অক্টোবর) দুপুর ১২টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের সামনে আয়োজিত এক মানববন্ধনে অংশ নেন।

সেখানে সংগঠনটির মুখপাত্র গোলাম রাব্বানীসহ প্রায় দুই শতাধিক টিপিবির মেম্বার উপস্থিত ছিলেন।

এ প্রসঙ্গে ওমর সানি বলেন, ‘প্রতিবাদ করতে নির্দিষ্ট কোনো জায়গার দরকার হয় না। পৃথিবীর যেকোনো জায়গা থেকে প্রতিবাদ করা যায়। সেটা যদি হয় ন্যায় সঙ্গত তাহলে কোনো কথাই নেই। আমি আর মৌসুমী নির্দিষ্ট কোনো চলচ্চিত্রের জায়গায় নেই। দেশ থেকে দেশান্তরে। প্রতিবাদের কোনো দল নেই। ভালো থাক দেশের মানুষ ভাল থাক দেশটি। আই লাভ বাংলাদেশ।’
তিনি টিপিবি’র এই প্রতিবাদী মানববন্ধন আয়োজনের জন্য গোলাম রব্বানীকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

মানববন্ধনে গোলাম রাব্বানী ধর্ষণের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রের নিকট তিনটি দাবি উত্তাপন করেন। দাবিগুলো হলো :

১. অপরাধের মাত্রা বিবেচনায় ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি প্রকাশ্য মৃত্যুদন্ডের বিধান রেখে, অনতিবিলম্ব বিদ্যমান ১৬০ বছর পুরনো, সেকেলে দণ্ডবিধি আইন সংশোধন।

২. ধর্ষণ ও যৌন নির্যাতন সংক্রান্ত ফৌজদারি আমলযোগ্য অপরাধে, যেকোনো পর্যায়ে সালিশ-বিচার মীমাংসার নামে প্রহসন বন্ধ করতে কঠোর নির্দেশনা প্রদান।

৩. ধর্ষণ মামলায় বাদী তথা ভুক্তভোগীর পক্ষে আইনজীবী নিয়োগ ও মামলা পরিচালনার যাবতীয় ব্যয়ভার রাষ্ট্র কর্তৃক বহন শতভাগ নিশ্চিত করা।