গোমূত্রে কোনো আপত্তি নেই বলিউডের অন্যতম প্রধান তারকা অক্ষয় কুমারের। তিনি রোজই গোমূত্র পান করতেন। ইনস্টাগ্রামে নিজেই জানালেন সে কথা। অক্ষয় কুমার, হুমা কুরেশি এবং ডিসকভারি চ্যানেলের ম্যান ভার্সেস ওয়াইল্ড শো-র জনপ্রিয় হোস্ট বেয়ার গ্রিলসকে নিয়ে ইনস্টাতে লাইভ শো ছিল। সেখানেই অক্ষয় ফাঁস করলেন তার গোপন কথা। শুনে তো হুমা কুরেশি হতবাক!

গোমূত্র নিয়ে ভারতে এর আগে আলোড়ন কম হয়নি। কট্টরপন্থী হিন্দু সংগঠন হিন্দু সহাসভা দিল্লিতে গোমূত্র পার্টিও করেছিল। সেখানে অনেকে গিয়ে গোমূত্র পান করেছেন। এমনকী, করোনাকালেও বিজেপি-র বিধায়ক, নেতাদের গোবর, গোমূত্র নিয়ে কথা বলতে শোনা গেছে। কিন্তু তারকাদের মধ্যে কেউ গোমূত্র পান করেন, তা এতদিন জানা যায়নি। বলতে গেলে, অক্ষয় কুমার প্রথম তারকা যিনি রোজ গোমূত্রপান করার কথা স্বীকার করলেন।

চীনে যখন করোনার প্রকোপ শুরু হয়ে ছিল, তখনই বিজেপি এবং তার শাখা সংগঠনগুলির কোনও কোনও নেতা বলেছিলেন, গোমূত্র পান করলে করোনা হবে না। ভারতে করোনা ভাইরাস প্রবেশ করার পরে সেই আশ্চর্য কাজটিই প্রকাশ্যে করে দেখাল গেরুয়া শিবির। আয়োজন হল গোমূত্র পার্টির।

শুধু গোমূত্র কেন, অক্ষয় হাতির পটি থেকে বানানো চা-ও খেয়েছেন। তবে সেটা খেতে হয়েছে বেয়ার গ্রিলসের শো-তে যোগ দিয়ে। ইনস্টার ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, হুমা কুরেশি প্রথমে দর্শকদের সঙ্গে কথা বলছেন। তারপর অক্ষয় ঢুকলেন। তারপর বেয়ার গ্রিলস। হুমা অক্ষয়কে জিজ্ঞাসা করলেন, ‘হাতির পটি থেকে বানানো চা খেতে কেমন লাগল?’ বেয়ারের প্রশ্ন ছিল, ‘ওটা খেতে কি খুব খারাপ ছিল?’ অক্ষয়ের জবাব, ‘আমার কোনো অসুবিধা হয়নি। আমি তো রোজ গোমূত্র পান করতাম। আয়ুর্বেদের কারণে।’

পরে বেয়ারের অনুষ্ঠানের যে প্রোমো দেয়া হয়েছে, তাতে দেখা যাচ্ছে, অক্ষয় ওই হাতির পটির চা খাচ্ছেন। তিনি বড় গাছে চড়ছেন। নদী থেকে ব্রিজের ওপর দড়ি বেয়ে উঠে আসছেন।

এর আগে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও এই অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছিলেন। শুটিং হয়েছিল করবেট অভয়ারণ্যে। শুটিং এর দিন বড় জঙ্গি হামলা হয়। তা নিয়ে সে সময় বিতর্কও হয়েছিল।