প্রার্থনা ফারদিন দীঘি। মা প্রয়াত অভিনেত্রী দোয়েল আর বাবা সুব্রত। মুঠোফোনের বিজ্ঞাপন দিয়ে শিশুশিল্পী হিসেবে শোবিজ অঙ্গনে তার পথচলা শুরু। এরপর তিনি অভিনয় করেছেন ‘চাচ্চু’, ‘দাদী মা’, ‘পাঁচ টাকার প্রেম’সহ অসংখ্য হিট ছবিতে। ছোট্ট সেই দীঘি এবার চিত্রনায়িকা হয়ে ক্যামেরার সামনে আসতে যাচ্ছেন। চলচ্চিত্র ও অন্যান্য প্রসঙ্গে কথা হলো তার সঙ্গে।

কেমন আছেন?

ভালো আছি।

শুনলাম, শাপলা মিডিয়ার পাঁচ ছবিতে নায়িকা হিসেবে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন?

হ্যাঁ। কিছুদিন আগে শাপলা মিডিয়ার পাঁচ ছবিতে কাজ করব বলে চুক্তিবদ্ধ হয়েছি। কয়েকদিনের মধ্যেই ধারাবাহিকভাবে ছবিগুলোর কাজ শুরু করব। এর মধ্যে আগামী সপ্তাহ থেকে ‘টুঙ্গীপাড়ার মিয়া ভাই’ ছবির কাজটি শুরু হবে। এটি নির্মাণ করছেন শামীম আহমেদ রনি। এতে আমার বিপরীতে অভিনয় করবেন শান্ত খান। বাকি কাজগুলো পর্যায়ক্রমে শুরু হবে।

এক নায়কের বিপরীতে পাঁচ ছবি! সিদ্ধান্তটা কি হুট করে নেওয়া?

না, ভেবে চিন্তেই সিদ্ধান্ত নিয়েছি। মা বেঁচে থাকতে আমার এসব সিদ্ধান্ত মা’ই নিতেন। এখন বাবা নেন। শাপলা মিডিয়ার প্রস্তাব পাওয়ার পর, ভেবে-চিন্তেই সিদ্ধান্ত নিয়েছি। তাছাড়া ছবিগুলোর গল্প তৈরি হচ্ছে। গল্পের প্রয়োজনে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান যদি মনে করে নায়ক অন্য কেউ হলে ভালো হবে, সেক্ষেত্রে পরিবর্তন হতেও পারে। এটা সময়ই বলে দেবে।

চুক্তিবদ্ধ হওয়া ছবিগুলোর নাম  নির্মাতার নাম কি চূড়ান্ত হয়েছে?

সবগুলো ছবির নাম এখনো চূড়ান্ত হয়নি। প্রাথমিক নাম ঠিক হয়েছে। ছবিগুলো নির্মাণ করবেন গুণী নির্মাতা কাজী হায়াৎ, মালেক আফসারী, এফ আই মানিক, শাহ আলম কিরণ, অপূর্ব রানা, শামীম আহমেদ রনি।

শুনলাম, মালেক আফসারী ছবিতে টমবয় চরিত্রে অভিনয় করবেন আর সে কারণে নাকি আপনার চুলও ছাঁটতে হবে?

আমি এখনো এসব বিষয়ে কিছু শুনিনি। চুক্তিবদ্ধ হওয়ার সময় ছবিগুলোর গল্প কিছুটা শুনেছি। আগে, ছবিগুলোর পুরো গল্প শুনি, তারপর বাকিটা বলা যাবে।

শাপলা মিডিয়ার বাইরেও নাকি কাজ করতে যাচ্ছেন?

এ বিষয়ে এখন বলা ঠিক হবে না। অপেক্ষা করুন, হয়তো আগামী মাসে নতুন ছবির বিষয়ে কথা হবে।

শিশুশিল্পী হিসেবেই আপনি দর্শকদের হৃদয়ে জায়গা করে নিয়েছেন নায়িকা হিসেবে তাদের প্রত্যাশা জায়গা রাখতে পারবেন?

এটা দর্শকরাই ঠিক করবে। তবে আমার বিশ্বাস, পারবো। ছবিগুলোর গল্প যতটুকু শুনেছি, আমার মনে হয়েছে এটি দর্শক হৃদয়ে আঁচ কাটতে পারবে। এবার অভিনয়ের বিষয়। আমি চেষ্টা করব নিজের সেরাটুকু দিয়ে কাজ করার। পরেরটা আল্লাহ ভরসা।

পড়াশোনার খবর বলুন

করোনার কারণে আপাতত বাসা থেকে পড়াশোনা করছি। আমি এখন এইচএসসি দ্বিতীয় বর্ষে পড়ি। ক’দিন আগে অনলাইনে পরীক্ষা দিলাম। কাজ শুরুর পর, আমরা জন্য একটু চাপ হয়ে যাবে। কারণ সামনেই এইচএসসি পরীক্ষা। পরীক্ষার জন্য নিজেকে ভালোভাবে প্রস্তুত করতে হবে।