লিওনেল মেসি প্রায়ই বলতেন- ফুটবল ক্যারিয়ারটা তিনি শেষ করবেন বার্সেলোনাতেই। সময়ের সঙ্গে পাল্টে গেছে মেসির সুর। শৈশবের ক্লাব ছাড়তে চাইছেন তিনি। শোনা যাচ্ছে, ম্যানচেস্টার সিটির প্রস্তাবে সম্মতি প্রকাশ করেছেন আর্জেন্টাইন এই মহাতারকা। কিন্তু মেসি বার্সেলোনা ছেড়ে যাক, তা কখনোই চায় না ক্লাবটির ভক্ত-সমর্থকরা। আর স্প্যানিশ ক্রীড়া সাংবাদিক এদু আগিররে মনে করেন, মেসির বার্সেলোনা ছাড়াটা হবে ফুটবল ইতিহাসের বড় বিশ্বাসঘাতকতা।
বার্সেলোনার সঙ্গে নানান কারণে সম্পর্ক খারাপ হয়ে যাওয়ায় গত ২৫শে আগস্ট বুরোফ্যাক্সের মাধ্যমে লিওনেল মেসি জানান, তিনি আর ন্যু ক্যাম্পে থাকছেন না। এরপরই মেসি ভক্তরা বিক্ষোভে নামে।

বার্সা সভাপতি হোসেপ মারিয়া বার্তোমেউয়ের পদত্যাগের দাবি তুলে তারা। তাদের বিশ্বাস, বার্তোমেউকে সরিয়ে দিলেই বার্সেলোনায় থাকবেন মেসি। এরপর সংবাদমাধ্যমে খবর আসে, মেসি ন্যু ক্যাম্পে থাকতে রাজি হলে পদত্যাগ করবেন বার্তোমেউ। কিন্তু কোনো কিছুই মেসির মন গলাতে পারছে না। ক্লাব ছাড়ার সিদ্ধান্তে অটল তিনি। সাংবাদিক এদু আগিররের পছন্দ হয়নি ব্যাপারটা। বার্সেলোনার প্রতি মেসির আচরণে সন্তুষ্ট নন তিনি। স্প্যানিশ টিভি প্রোগ্রাম ‘এল চিরিংগুইতো দে ইয়োগোনেস’-এ আগিররে বলেন, ‘আমার কাছে মেসির বার্সেলোনা ছাড়াটা হবে ফুটবল ইতিহাসের বড় বিশ্বাসঘাতকতা। বার্সেলোনা সমর্থকদের এমনটা প্রাপ্য নয়। মেসি তাদের সঙ্গে প্রতারণা করছে । মেসির উচিৎ হবে একটা সংবাদসম্মেলন ডেকে সবাইকে বলা যে আমি কোথাও যাবো না। কারণ এখানে আমার অনেক স্মৃতি। মেসি তখনই যাচ্ছে যখন বার্সার নৌকা ডুবতে বসেছে। এই মুহূর্তে তার ক্লাব ছাড়া মোটেও উচিত হবে না।’