ক্রিকেট লড়াইয়ে বহুবার ভারতের মুখোমুখি হয়েছেন পাকিস্তানের ‘গতিদানব’ খ্যাত বোলার শোয়েব আখতার। সেই শোয়েবই কিনা চেয়েছিলেন বন্দুক হাতে ভারতের বিরুদ্ধে যুদ্ধে নামতে! তাও একবার নয়, দু’বার।

হ্যা, দেশের হয়ে কার্গিল যুদ্ধে লড়াই করার ইচ্ছা ছিল শোয়েবের। আর সে কারণেই দু’বার কাউন্টি ক্রিকেট খেলার লোভনীয় প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেন রাওয়ালপিন্ডি এক্সপ্রেস। সম্প্রতি পাকিস্তানের একটি সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এমনটাই জানিয়েছেন তিনি।

সাবেক এই ক্রিকেট তারকার দাবি, ১৯৯৯ সালের মে থেকে জুলাই মাস পর্যন্ত চলা কার্গিল যুদ্ধে নিজ দেশের হয়ে প্রাণ দিতে চেয়েছিলেন তিনি। সে জন্যই নটিংহ্যামশায়ারের ১ লক্ষ ৭৫ হাজার পাউন্ডের চুক্তি গ্রহণ করেননি। শোয়েব আরও জানান, একই কারণে ২০০২ সালে আরও একটি কাউন্টি খেলার প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছিলেন তিনি।

শোয়েব বলেন, ‘আমার কাছে নটিংহ্যামের ১ লক্ষ ৭৫ হাজার পাউন্ডের প্রস্তাব ছিল। পরে ২০০২ সালে আরও একটি বড় প্রস্তাব পাই। যখন কার্গিল যুদ্ধ চলছিল, আমি দু’টি প্রস্তাবই প্রত্যাখ্যান করি।’

শোয়েব আরও বলেন, ‘আমি লাহোরের উপকণ্ঠে দাঁড়িয়ে ছিলাম।

সেনাবাহিনীর একজন জেনারেল আমাকে জিজ্ঞাসা করে, অমি সেখানে কি করছি। আমি বলি, যুদ্ধ শুরু হতে চলেছে এবং আমরা একসঙ্গে মরবো। আমি দু’বার একারণেই কাউন্টি প্রস্তাব ফিরিয়েছি এবং তাতে ওরা অবাক হয়েছিল। যদিও আমার তাতে বিশেষ মাথাব্যথা ছিল না। আমি কাশ্মীরে আমার বন্ধুদের সঙ্গে যোগাযোগ করি এবং বলি, আমি লড়াইয়ে নামতে প্রস্তুত।’

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস অবলম্বনে।