উত্তর কোরিয়া জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞা লঙ্ঘন করেছে বলে অভিযোগ করেছে ৪৩টি দেশ। জ্বালানী তেল আমদানির ক্ষেত্রে জাতিসংঘ উত্তর কোরিয়ার ওপর যে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে তা দেশটি তোয়াক্কা করছে না বলে দাবি করেছে বৃটেন, যুক্তরাষ্ট্র, ফ্রান্সসহ ৪৩টি দেশ। তাই অবিলম্বে এই জ্বালানী সরবরাহ বন্ধ নিশ্চিতে আহবান জানিয়েছে দেশগুলি। এ খবর দিয়েছে নিউ ইয়র্ক টাইমস।
খবরে জানানো হয়, গত শুক্রবার জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের এক আলোচনায় উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে ওই অভিযোগ উত্থাপন করা হয়েছে। দেশগুলোর দাবি, ২০২০ সালের মে পর্যন্ত উত্তর কোরিয়া প্রায় ১৬ লাখ ব্যারেল পরিশোধিত তেল আমদানি করেছে। যদিও জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞা অনুযায়ী, বছরে ৫ লাখ ব্যারেলের বেশি তেল আমদানি করতে পারবেনা দেশটি। ২০১৭ সালে দেশটির পারমাণবিক কর্মসূচির লাগাম টেনে ধরতে এ নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছিল।
তবে এরপর থেকে উত্তর কোরিয়া কোনো বছরই এই নিষেধাজ্ঞা মেনে চলেনি।

২০১৮ ও ২০১৯ সালেও দেশটির বিরুদ্ধে নালিশ জানিয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্ররা। তবে তখন চীন ও রাশিয়ার কারণে উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে বড় কোনো ব্যবস্থা নেয়া সম্ভব হয়নি। এবার আবারো অভিযোগ করা ৪৩ দেশ জানিয়েছে, রাশিয়া ও চীন দুই দেশই সমানে তেল বিক্রি করে যাচ্ছে উত্তর কোরিয়ার কাছে। তাই দেশটিতে যাতে আর তেল রপ্তানি করা না যায় তাই সমুদ্রাঞ্চলে কড়া পাহাড়া বসানোর আহবান জানিয়েছে দেশগুলো।