করোনাভাইরাস মহামারীর মধ্যে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের দুর্ভোগ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে গণফোরাম। তারা এ জন্য যথাযথ পরিকল্পনার অভাবকে দাযী করেছেন।

শনিবার এক বিবৃতিতে দলটি বলছে, ‘বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের দুর্ভোগ লাঘব করতে এবং দেশের সম্পদ, জমি, ফসল এবং প্রাণিসম্পদ রক্ষার জন্য পদক্ষেপ ও পরিকল্পনা প্রয়োজন, যা সঠিকভাবে নির্বাচিত ও গণতান্ত্রিক সরকার না থাকলে অসম্ভব।’

বিবৃতিতে গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক ড. রেজা কিবরিয়া বলেন, কুড়িগ্রাম, লালমনিরহাট, সিরাজগঞ্জ, জামালপুর, সুনামগঞ্জ, সিলেট ও হবিগঞ্জ জেলাসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় ব্যাপক বন্যার ফলে মানুষ সীমাহীন দুর্দশায় পড়েছে।

এছাড়াও নদীর তীর ভাঙনের ফলে মানুষের ঘরবাড়ি, জমি ও ফসল ধ্বংস হচ্ছে। কৃষকরা তাদের ফসল বন্যার পানির নিচে পড়ায় নিঃস্ব হয়ে পড়েছে। করোনার মহামারির মধ্যে মানুষ বন্যায় চরম অসহায় হয়ে পড়েছ বলেও জানান তারা।

গণফোরাম নেতারা বলেন, সরকারের উচিত বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য অস্থায়ী আশ্রয় ও প্রয়োজনীয় ত্রাণ সহায়তা নিশ্চিত করা।

ড. কামাল ও রেজা কিবরিয়া বন্যার পানি হ্রাস হওয়ার সাথে সাথে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের চারা, বীজ এবং ঋণ সরবরাহের পদক্ষেপ নেয়ার আহ্বান জানান।

তারা হতাশা প্রকাশ করে বলেন, দেশে এখন পর্যন্ত কোনও বন্যা নিয়ন্ত্রণ এবং নদী শাসনের জন্য যথাযথ উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়নি।

সূত্র : ইউএনবি