আরিফুর রহমান মাদারীপুর,প্রতিনিধি ।
মাদারীপুর শহরের পুরান বাজারের স্বর্ণ ব্যবসায়ী রীতা জুয়েলার্সের মালিক সন্তোষ কর্মকার (৬৫) ও শহরের দরগাখোলা কালিবাড়ি (রকেট বিড়ি) এলাকার শ্যামাপদ শীল (৭০) করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন। সন্তোষ কর্মকার শুক্রবার গভীর রাতে সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এবং শ্যামাপদ শীল শুক্রবার বিকেলে নিজ বাড়িতে মারা যান। এ নিয়ে জেলায় করোনার উপসর্গ নিয়ে ১৬ জনের মৃত্যু হলো।
জানা গেছে, মাদারীপুর শহরের বাজারের স্বর্ণ ব্যবসায়ী সন্তোষ কর্মকার কয়েক দিন ধরে জ¦র সর্দি ও শ^াসকষ্টে ভুগছিলেন। শুক্রবার রাতের তার অবস্থার অবনতি হলে মাদারীপুর সদর ভর্তি করা হয়। গভীর রাতে তিনি সদর হাসপাতালের আইসোলেশনে মারা যান। অপরজন শ্যামাপদ শীল জ¦র সর্দি ও শ^াসকষ্টে শুক্রবার বিকেলে নিজ বাড়িতে মারা যান। স্বাস্থ্য বিভাগ দু‘জনের নমুনা সংগ্রহ করেছে। শুক্রবার সন্ধায় ও শনিবার সকালে শ্মশান কমিটির তত্বাবধানে স্বাস্থ্যবিধি মেনে তাদের সৎকার করা হয়েছে।
মাদারীপুর সদর হাসপাতালে আবাসিক চিকিৎসক ডা. অখিল সরকার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, “হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত রাতে একজন মারা গেছে। তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।
মাদারীপুর সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মো. ইকরাম হোসেন বলেন, করোনা উপসর্গ নিয়ে একজন তার নিজ বাড়িতে মারা গেছে এবং অন্যজন সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে। দুই জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।