আরিফুর রহমান,মাদারীপুর:

মাদারীপুরের রাজৈরে পুলিশের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তার বানিজ্যের অভিযোগ এনে মানববন্ধন করেছে স্থানীয়রা।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সম্প্রতি মাদারীপুরের রাজৈর থানায় কতিপয় পুলিশ রাজৈরের ব্যবসায়ীদের ধরে নিয়ে ‘গ্রেপ্তার বানিজ্য’ করছে। এতে অতিষ্ট হয়ে স্থানীয় বৃহস্পতিবার সকালে রাজৈরে মানববন্দন করেন। মানববন্ধনে বক্তাদের দাবী,‘পুলিশ হয়রানি করে সাধারণ মানুষ ও ব্যবসায়ীদের ধরে নিয়ে গ্রেপ্তার বানিজ্য করছে। একারনে বাধ্য হয়ে আমরা ওদের বিচার ও গ্রেপ্তার বানিজ্য বন্ধের দাবীতে মানববন্ধনের আয়োজন করেছি। এব্যপারে রাজৈরের পৌর মেয়র শামিম নেওয়াজ মুন্সি বলেন, পুলিশের সাথে ভুল বোঝাবুঝির কারনে মানববন্ধন হয়েছিল। পরে সমাধান হয়ে গেছে।
রাজৈর থানার ওসি শওকত জাহান বলেন, গ্রেপ্তার বানিজ্যের অভিযোগ সত্য নয়। করোনা পরিস্থিতির কারনে দোকান বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। অনেকেই নির্দেশ মানে না। একারনে বুধবার একজনকে ধরে আনতে গিয়ে মেয়ররে স্ত্রীর সাথে কথা কাটি হয়। পরে বিষয়টি সমাধান হয়েছে।

 

মাদারীপুরের কালকিনি ঝুড়গাঁ বিলে বিভিন্ন প্রজাতীর মাছের পোনা অবমুক্তকরন

আরিফুর রহমান,মাদারীপুর:
এই মহামারী করোনা সংকটে জনসাধারনের কথা চিন্তা করে মাদারীপুরের কালকিনি পৌর এলাকার ঝুরগাঁ বিলে প্রায় ৫ লাখ টাকার রুই ও কাতলাসহ বিভিন্ন প্রজাতির মাছের পোনা অবমুক্ত করেছেন স্থানীয় অর্ধশতাধিক কৃষক। এতে করে শিকারমঙ্গলসহ বেশ কয়েকটি গ্রামের প্রায় অর্ধলাখ মানুষ এ মাছ খেয়ে আমিষের চাহিদা মেটাতে পারবেন বলে জানাযায়। তবেএ মাছ বড় হওয়ার সঙ্গে-সঙ্গে ধরে খাওয়ার জন্য সবার জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হবে বলে স্থানীয় কৃষকরা জানান। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে ওই বিলে আনুষ্ঠানিকভাবে মাছের পোনা অবমুক্তকরন করা হয়।
কৃষক সমীর ও তপনসহ বেশ কয়েকজন বলেন, আমরা সবাই মিলে এলাকাবাসীর স্বার্থে ঝুরগাঁ বিলে মাছের পোনা ছেড়েছি। যাতে করে করোনার এই মহা সংকটে সাধারন মানুষের বিনামুল্যে এ মাছ খেয়ে বাঁচতে পারে। এই সংকট মুহুর্তে অনেকেই বাজারে গিয়ে মাছ কিনে খেতে পারেন না। তাই আমরা এলাকার সবার কথা মাথার রেখে ৫ লাখ টাকার মাছ বিলে ছেড়েছি। এই মাছ বড় হলে সবার ধরে খাওয়ার জন্য কোন বাঁধা নিষেধ থাকবে না।