বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাস পরিস্থিতির কারণে এ বছর আসন্ন হজে শুধুমাত্র সৌদি আরবে বসবাসকারীরা হজ পালনের সুযোগ পাবেন। ধারণা করা হয়েছিল, আগের বছরগুলোর মতো সৌদি আরবের নাগরিক কিংবা বিদেশি নাগরিকদের মধ্যে অন্তত কয়েক লাখ হজ পালনের সুযোগ পাবেন। কিন্তু দেশটির হজ ও ওমরাহ বিষয়ক মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, সৌদিতে বসবাসকারীদের মধ্যে সর্বোচ্চ ১০ হাজার মানুষ হজের সুযোগ পাবেন।

গতকাল মঙ্গলবার বেশ কয়েকটি শর্তের ভিত্তিতে হজ পালনের সুযোগের কথা জানিয়েছে দেশটির হজ ও ওমরাহ বিষয়ক মন্ত্রণালয়। এসব শর্তের মধ্যে অন্যতম হলো-

বহির্বিশ্ব থেকে এ বছর হজের সফরে আসার অনুমতি পাবেন না। ৬৫ বছরের বেশি বয়সী কেউ হজে আসার অনুমতি পাবেন না। দীর্ঘস্থায়ী রোগাক্রান্ত কেউ হজে অংশগ্রহণ করতে পারবেন না। স্বাস্থ্য পরীক্ষায় উন্নীত হয়ে হজে আসতে হবে। হজের সময়ে শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। প্রতিদিন স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হবে এবং হজ শেষে আইসোলেশন পালন করতে হবে।

এর আগে গত সোমবার সৌদি আরবের হজ ও ওমরাহ মন্ত্রণালয় জানায়, ১৪৪১ হিজরি মোতাবেক ২০২০ সালে আন্তর্জাতিকভাবে বহির্বিশ্বের হজ পালনকারীরা হজে অংশ নিতে পারবেন না। সীমিতভাবে সৌদি আরবে বসবাসকারী দেশটির নাগরিক অথবা প্রবাসীরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে হজ পালনের সুযোগ পাবেন।

চলমান করোনাভাইরাস মহামারির হুমকির কারণে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। জিলহজ মাসের চাঁদ দেখা সাপেক্ষে ২৮ জুলাই থেকে হজের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হবে।

২০১৯ সালে হজ পালন করেছেন ২৪ লাখ ৮৯ হাজার ৪০৬ জন। এর মধ্যে সৌদির নাগরিক ছিলেন ২ লাখ ১১ হাজার ৩ জন, আর সৌদিতে কর্মরত বিভিন্ন দেশের নাগরিক ৪ লাখ ২৩ হাজার ৩৭৬ জন হজ পালন করেছেন।